তাফসীর ইবনে কাসীর কে ছিলেন এবং বই

তাফসীর ইবনে কাসীর ডাউনলোড pdf – ফ্রেস কপি ডাউনলোড করুন কোন ঝামেলা ছাড়াই।

তাফসীর ইবনে কাসীর গ্রন্থটির রচয়িতা ‘ইবনে কাসীর’র পুরো নাম ইসমাঈল ইবন উমর ইবন কাসীর ইবন দূ’ইবন কাসীর ইবন দিরা আল-কুরায়শী। উনার লেখা পবিত্র কুরআনের ব্যাখ্যামূলক তাফসীর গ্রন্থই হচ্ছে “তাফসীরে ইবনে কাসীর।

উনার নাম সংক্ষিপ্ত রূপে ব্যবহার করে এটির নামকরণ করা হয়েছে তাফসীরে ইবনে কাসীর। আর ইবনে অর্থ ছেলে বা সন্তান। কাসির ওনার বাবার নাম।

তার পুরো নাম আবুল ফিদা হাফিয ইমাদ উদ্দিন ইসমাঈল ইবন আবু হাফস উমর ইবন কাসীর ইবন দূ ইবন কাসীর ইবন দিরা আল-কুরায়শী আল-বুসরি আল-শাফিয়ি রা.। তিনি বিচার দিবসের পূর্বের চিহ্ন নামক বইয়ের লেখক। তার রচিত তাফসিরের জন্য তিনি অধিক প্রসিদ্ধ। এই তাফসিরকে প্রামাণ্য হিসেবে ধরা হয়।

আল্লামা ইসমাইল ইবনে কাসীর জন্ম মৃত্যু

ইবনে কাসীর (রহঃ) ৭০০ হিজরি মতান্তরে ৭০২ হিজরিতে জন্মগ্রহণ করেন। তার জন্মভূমি সিরিয়ার মাজদল নামক স্থানে। কোরায়শের বনী হাসালা শাখা গোত্রের অন্তর্ভুক্ত ইবনে কাসির (রহঃ)।

ইবনে কাসীর (রহঃ) কর্মজীবনী

কর্মজীবনে তিনি উন্মুসসা’ওয়াত তানাকুরিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ পদে অধিষ্ঠিত হয়েছিলেন। তিনি নুজায়বিয়ায় শিক্ষকতা করেন এবং ৭৪৮ হিজরী সনে ফাওকানী বিশ্ববিদ্যালয়েও অধ্যাপনা করেন।

ইমাম ইবন কাছীর রচিত গ্রন্থমালা

  • তাফসীরুল কুরআনিল আজিম বা তাফসির ইবনে কাসির
  • আল বিদায়া ওয়ান নিহায়া
  • আল ইজতিহাদ কী তালাবিল জিহাদ
  • শামাইলুর রাসূল ওয়া দালাইলু নুবুওয়াতিহী ওয়া ফন্যায়েলিহী ও খাসাইসিহী
  • ইখতাসির-ই-উলুমিল হাদিস
  • ইখতিসারু আস সীরাতুন নাবাবিয়্যাহ
  • আহাদীসুত তাওহীদ ওয়ার রান্দু আলাশ শিরক
  • জামিউল মাসানীদ
  • আত তাকমীল কী মা’রিফাতিস সিকাতি ওয়াদ দুআ’ফা ওয়াল মাজহীল
  • তাবাকাতুশ শাফিঈয়্যা
  • আল কাওয়াকিবুদ দারায়ী ফীত তারিখ
  • সীরাতুশ শায়খায়ন
  • কিতাবুল আহকাম
  • আল ওয়াদিহুন নাফীফ ফী মানাকিবিল ঈমাম মুহাম্মদ ইব্ন ইদ্রীস
  • আল আহকামুল কবীরা
  • ইখতিসারু কিতাবি আল মাদখাল। ইলা কিতাবিস সুনান লিল বায়হাকী
  • শারহু সহীহ আল-বুখারী
  • আস-সিমাত

ইবনে কাসীর সকল গ্রন্থ পাবেন যেখানে

রকমারি (rokomari.com) এর ওয়েবসাইট থেকে আপনি তাফসীর ইবনে কাসীর বইটি কিনতে পারবেন। তাছাড়া বিভিন্ন ওয়েবসাইট রয়েছে যেখান থেকে ফ্রিতে ইবনে কাসীর (রহঃ) এর সকল বইয়ের পিডিএফ ডাউনলোড করতে পারবেন।

বর্তমানে আমাদের স্মার্টফোনের প্লে-স্টোরেও এর সকল খন্ড রয়েছে, আপনি চাইলে প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করার জন্য সেখানে ” তাফসীর ইবনে কাসির (সব খন্ড)~Ta ” লিখে সার্চ করলে একটি অ্যাপ পেয়ে যাবেন। সেই অ্যাপটি ডাউনলোড করে ওপেন করলে সকল খন্ড ফ্রিতে পায়ে যাবেন।

তাফসীরে ইবন কাছীরের বিশেষত্ব

ইবনে কাসীর (রহঃ) এর যত রচনা আছে তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে তাফসীরে ইবনে কাসীর। তাফসীরুল কুরআনিল আজিম গ্রন্থটি তাফসীরে ইবনে কাসির নামে পরিচিত। এই রচনাটি ইবনে কাসীর (রহঃ) এর অমর স্মৃতির নিদর্শন। তাফসীরে ইবনে কাসির গ্রন্থটি অবিস্মরণীয় এবং অনবদ্য সৃষ্টি। রিওয়ায়েত ভিত্তিক তাফসির গুলোর মধ্যে এটি সর্বাধিক কল্যাণপ্রদ এবং উপকারী।

প্রাচীন যুগের রচিত অনেক তাফসীর গ্রন্থ বিলীন হয়ে গেছে। তবে যতগুলো তাফসীর গ্রন্থ লিপিবদ্ধ বা পাণ্ডুলিপি আকারে আবদ্ধ আছে তার মধ্যে তাফসীরে ইবনে কাসীর উল্লেখযোগ্য।

তাফসীরে মানকুল বা রেওয়াতী মূলক “তাফসীর ইন জারীর তাবারী” সময়ের দিক দিয়ে প্রথম পর্যায়ে এবং দ্বিতীয় পর্যায়ে হচ্ছে “তাফসীরে ইবনে কাসীর”। এতে অন্যান্য তাফসির সমূহের বৈশিষ্ট্য গুলো সমন্বয় এবং সংযোগ ঘটানো হয়েছে। 

তাসরি ইবনে কাসীর গ্রন্থটিতে অকাট্য দলীল প্রমাণ দ্বারা মাস’আলা দেয়া হয়েছে এবং অপূর্ব ভাষার শৈলী ও বর্ণনা দেয়া হয়েছে। ইবনে কাসীর (রহঃ) অসাধারণ পন্ডিত্য প্রদর্শন করার কারণে তাফসীর গ্রন্থ সমূহের মধ্যে এটি শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছে।

আরবি শব্দমালার পার্থক্য সহ প্রতিটি হাদীসের সিলসিলায়ে বা বর্ণনাক্রম দ্বারা নির্ভরযোগ্য করে তাফসীর ইবনে কাসীর তৈরি করা হয়েছে। সেই সাথে জটিল ও কঠিন অংশ গুলো বিশদ ব্যাখ্যা এবং সুন্দর শব্দমালায় বিশ্লেষণ করা হয়েছে।

অসাধারণ যুক্তির সূক্ষ্ম মানদন্ড এবং যাচাই বাছাই করে অকাট্য দলিল ও প্রমাণের আলোকে ভ্রান্ত মতবাদের খন্ডন করা হয়েছে তাফসীরে ইবনে কাসীর গ্রন্থে। কোনরকম সন্দেহ এবং জটিলতা বহির্ভূত তাফসির হচ্ছে তাফসীরুল কুরআনিল আজিম।

বিদআত থেকে মুক্ত এবং কোরআন ও সুন্নাহর ভিত্তিতে তাফসীর ইবনে কাসীর গ্রন্থটি তৈরি করা হয়েছে। সেই সাথে বিভিন্ন মাযহাব ও মতবাদের সমন্বয়ে ঘটানো হয়েছে এই গ্রন্থটিতে। তাফসির ইবনে কাসির গ্রন্থে কোরআনের তাফসীর করতে গিয়ে প্রথমে কোরআন ব্যবহার করেছেন, এরপর রাসূল (সাঃ) এর হাদিস ব্যবহার করেছেন। তারপর ধারাবাহিকভাবে সাহাবা কিরামের আছার, তাবাঈনের আব্দুয়াল ব্যবহৃত হয়েছে।

বিভিন্ন তাফসীরে কিতাব যেমন ইবনে জারীর, ইব্ন হাকিম ও ইন আতীয়া গারণাতী ইত্যাদি তাফসীরদের ভাষ্যমতে তিনি পূর্বসূরীদের মাঝামাঝি অনুসরণ করেছেন। আয়াতের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট হাদিসকে বর্ণনা করতে গিয়ে তিনি কোনটি বিশ্বাসযোগ্য বা প্রমাণসিদ্ধ সেটি উল্লেখ করেছেন। এভাবে তিনি বর্ণনাকারীদের সূক্ষ্ম সমালোচনা করতে পিছু হাঁটেন নি।

ইসরাইলি কাহিনী ও জাল হাদিসগুলোকে ফেলে দিয়ে মুসলিম জাতিকে কোরআন মাজীদের এক নির্ভেজাল তাফসীর উপহার দিয়েছেন। তাছাড়া তিনি পরবর্তী কালের তাফসীরকারদের কাজে লাগবে এরকম কিছু বিষয় তুলে ধরেছেন এই গ্রন্থে।

তাফসীরে ইবনে কাসীর গ্রন্থটি বিভিন্ন ভাষায় অনুবাদ করা হয়েছে এবং আরবি ভাষার বিভিন্ন সংক্ষিপ্ত সংস্করণ প্রকাশিত হয়েছে। আল্লামা ইবনে কাসির একনিষ্ঠ সাধনা অক্লান্ত পরিশ্রম করে তাফসীর ইবনে কাসীর গ্রন্থটি তৈরি করেছেন।

Share your love
Hemal Hasan
Hemal Hasan
Articles: 28