গুগলে কর্মরত অবস্থায় মারা গেলে কি কি সুবিধা পাওয়া যায়

গুগলে কর্মরত অবস্থায় মারা গেলে

আমরা বাংলাদেশের মানুষেরা ঠিক এই মুহূর্তে যে বিষয়টি সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দেই তা হলো সরকারি চাকরি। আমাদের দেশের প্রতিটি কোনায় কোনায় সমাজের মানুষেরা এই সরকারি চাকরি কে খুবই ভালো এবং নিরাপদ মনে করে।

কারণটা কারো অজানা নয়। কারণ বাংলাদেশ সরকার ঠিক এই মুহূর্তে সরকারি চাকরিজীবীদের খুবই সুযোগ সুবিধা দিচ্ছে। বেতন বৃদ্ধির পাশাপাশি অন্যান্য নানান ধরনের সুযোগ-সুবিধা সহ একটি মানুষ তার পরিবারকে সাথে নিয়ে অনায়াসে খুব ভালো জীবন যাপন করতে পারে।

এবং যদি হঠাৎ করে তার মৃত্যু হয়ে যায় তাহলেও কিন্তু তার পরিবার একটি মোটামুটি মানের পেনশন তার পক্ষ থেকে পেয়ে থাকে প্রতি মাসে মাসে। তাছাড়া চাকরির শেষ বয়সে তো একটি মোটা অংকের পেনশন রয়েছে।

এসকল বিষয় বিবেচনা করে এ বাংলাদেশের মানুষরা বর্তমানে সরকারি চাকরির প্রতি খুবই ঝুকে যাচ্ছে।

কিন্তু কখনো কি ভেবেছেন গুগলে কর্মরত অবস্থায় যদি আপনি মারা যান তাহলে কি কি সুবিধা তারা দিয়ে থাকে।

প্রথমত বলেন এই গুগল এ যাহারা চাকরি করেন তাদের বেতন অনেক বেশি হয়ে থাকে। তাছাড়া বাংলাদেশের সরকারি চাকরিজীবীদের মধ্যে তারা নানান ধরনের সুযোগ-সুবিধা পেয়ে থাকে ফ্রিতেই। কিন্তু আপনি যদি গুগলে কর্মরত অবস্থায় মারা যান তাহলে গুগল আপনাকে যে সকল সুবিধা দিবে তা হল

  • আগামী ১০ বছর পর্যন্ত আপনার স্ত্রী বা স্বামীকে আপনার বেতনের ৫০ পার্সেন্ট দেবে।
  • এবং সেইসাথে আপনার যদি কোন সন্তান থাকে তাহলে সন্তানের বয়স ১৯ বছর না হওয়া পর্যন্ত তাকে প্রতি মাসে ১০০০ ডলার করে দিবে।

যদিও গুগল একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান তারপরেও গুগল যে এ ধরনের সুবিধা দিয়ে থাকে তা আমাদের অনেকেরই অজানা। কারণ বাংলাদেশের বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো মারা যাওয়ার পরবর্তী সময়ে তেমন কোন ব্যয় ভার বহন করেনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *