বিকাশ ব্যালেন্স অটো স্বয়ংক্রিয় রিচার্জ কিভাবে করবেন এবং সুবিধা অসুবিধা কি

আর আপনার মোবাইলের ব্যালেন্স শেষ কিন্তু কথা বন্ধ হওয়া চলবে না। ব্যাপারটা নিশ্চয়ই দুর্দান্ত এবং আপনার মনের আগ্রহ নিশ্চয়ই জানতে চাচ্ছে যে, এটা কিভাবে সম্ভব। ব্যালেন্স অটো স্বয়ংক্রিয় রিচার্জ কিভাবে করবেন।

ধরুন কথা বলতে বলতে বা ইন্টারনেট ব্রাউজিং করতে করতে আপনার মোবাইলের ব্যালেন্স শেষ হয়ে গেল। গুরুত্বপূর্ণ কাজ হলে আপনার মনে জেদ হওয়ারই কথা। ওই মুহূর্তে আপনাকে নিশ্চয়ই পাশের কোন দোকানে বা মোবাইল থেকে বিকাশ বা অন্যান্য সেবার মাধ্যমে রিচার্জ করতে হবে ম্যানুয়ালি।

বর্তমানে বিকাশ আমাদের দেশে কতটা জনপ্রিয়। আর বিকাশের একটি সুবিধাজনক ফিচার হচ্ছে মোবাইল ব্যালেন্স অটো রিচার্জ সুবিধা। বর্তমানে এমন মানুষ হয়তো খুঁজে পাওয়া যাবে না আমাদের দেশে যার স্মার্টফোন আছে কিন্তু একটি বিকাশ একাউন্ট নেই। বিভিন্ন প্রয়োজনের তাগিদে ও স্কুল কলেজের উপবৃত্তির টাকা সংগ্রহের জন্য সকলের বর্তমানে একটি বিকাশ একাউন্ট রয়েছে।

এ ব্যাপারটি এতদিন ধরে হয় চললেও বিকাশ যারা ব্যবহার করেন তাদের জন্য নতুন একটি সুবিধা বিকাশ চালু করল সেটি হল স্বয়ংক্রিয় বা অটো রিচার্জ। গ্রাহকরা বিকাশ ব্যবহার করে যেকোনো সময় দেশের যেকোনো স্থান থেকে অন্য দেশে মোবাইল রিচার্জের এই জরুরী সেবাটি গ্রহণ করছেন। এই পোস্টের মাধ্যমে বিকাশের অটো রিচার্জ সুবিধা ও কিভাবে এটি উপভোগ করবেন সেই সম্পর্কে তুলে ধরবো।

এসেবা আরও সহজ করতেই বিকাশ অটো রিচার্জ সুবিধা। যে সকল গ্রাহকরা বাংলালিংক রবি অথবা এয়ারটেল প্রিপেইড নম্বর ব্যবহার করেন এবং ওই পিন নাম্বার দিয়ে বিকাশ একাউন্ট চালু করেছেন তারাই এই মুহূর্তে সেবাটি পাবেন।

বিকাশ অটো রিচার্জ সুবিধা কি

বিকাশের ভাষায় বিকাশ অটো রিচার্জ সুবিধা হচ্ছে যখন আপনার মোবাইল ব্যালেন্স বরাবর ১০ টাকা বা তার কম এ নেমে আসবে তখন আপনার পূর্বে সেট করা একটি অ্যামাউন্ট বিকাশ একাউন্ট থেকে মোবাইল ব্যালেন্স এ অটো রিচার্জ হয়ে যাবে।

অর্থাৎ সহজ ভাষায় যখন বিকাশে অটো রিচার্জ সুবিধা চালু করবেন তখন বিকাশ একটি নির্দিষ্ট পরিমাণে এমাউন্ট সেট করতে বলবে, মানে আপনি মোবাইল ব্যালেন্স ১০ টাকা বা তার কমে নেমে গেলে আপনি কত টাকা অটো রিচার্জ করতে চান তা বসাতে বলবে।

আর আপনি যখন অ্যামাউন্ট সেট করে অটো রিচার্জ সুবিধা চালু করে দেবেন তখন মোবাইল ব্যালেন্স ১০ টাকা বা তার কমে নেমে আসলে সেই সেট করা নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা আপনার বিকাশ একাউন্ট থেকে মোবাইল ব্যালেন্স এ অটো রিচার্জ হয়ে যাবে।

তবে অটো রিচার্জ সুবিধা ব্যবহার করার জন্য আপনি যেই নাম্বার দিয়ে বিকাশ একাউন্ট খুলেছেন সেই নাম্বারে শুধুমাত্র অটো রিচার্জ সুবিধা চালু করতে পারবেন। অর্থাৎ যেই নাম্বার দিয়ে আপনি বিকাশ একাউন্ট খুললে সেই নাম্বারে বিকাশ থেকে অটো রিচার্জ সুবিধা চালু করতে পারবেন না।

বিকাশের মাধ্যমে ব্যালেন্স অটো রিচার্জ ব্যবহারের নিয়ম

বিকাশের মাধ্যমে ব্যালেন্স অটো রিচার্জ করতে পারবেন ২ টি উপায়ে। আর ২টি উপায় ও কিভাবে ২টি উপায়ে রিচার্জ করবেন তা নিচে দেওয়া হলোঃ

  • বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে
  • *247# ডায়াল করে

বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে অটো রিচার্জ করার নিয়ম

বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে ব্যালেন্স অটো রিচার্জ সুবিধা ব্যবহার করার জন্য অবশ্যই বিকাশ অ্যাপ এর আপডেট ভার্সন থাকতে হবে। যদি আপডেট ভার্সন না থেকে থাকে তাহলে প্লে স্টোর থেকে বিকাশ এপ আপডেট করুন।

এবার প্রথমে বিকাশ অ্যাপ ওপেন করুন। ওপেন করে পিন নাম্বার দিয়ে লগইন করার পর মোবাইল রিচার্জ অপশনে ক্লিক করুন।

ক্লিক করার পর আপনি যেই নাম্বার দিয়ে বিকাশ একাউন্ট তৈরি করেছিলেন সেই বিকাশ নাম্বার সিলেক্ট করুন বা খালি ঘরে লিখবেন। লিখে পরবর্তী পেজে যাওয়ার জন্য বাটনে ক্লিক করুন।

পরবর্তী পেজে যাওয়ার পরে তোমার নিচের দিকে লক্ষ্য করলে দেখতে পাবেন Check Auto-Recharge Setting নামে একটি অপশন দেখতে পাবেন, সেখানে ক্লিক করুন.

এবার Activate Auto-Recharge বাটনটি ক্লিক করে চালু করতে গেলে অটো ব্যালেন্স রিচার্জের জন্য একটা এমাউন্ট বসাতে হবে। আপনি যেই এমাউন্ট টি বসাবেন সেটি আপনার ব্যালেস ১০টাকা বা তার কম হলে অটো রিচার্জ হয়ে যেবে। অ্যামাউন্ট বসানোর হয়ে গেলে পরবর্তী বাটনটিতে ক্লিক করুন।

সবকিছু করা হলে এবার কনফার্ম হওয়ার জন্য বিকাশ পিন নাম্বার দিতে বলবে, বিকাশ পিন নাম্বার দিয়ে দিলেই সুবিধাটি চালু হয়ে যাবে।

বিঃদ্রঃ ব্যালেন্স অটো রিচার্জ এর জন্য আপনি যে পরিমাণে এমাউন্ট সেট করবেন, বিকাশ একাউন্টে সেই পরিমাণ টাকা না থাকলে অটো রিচার্জ সুবিধাটি কাজ করবেনা।

*247# ডায়াল করে বিকাশ থেকে অটো রিচার্জ

যদি বিকাশ এপ ব্যবহার না করেন বা বিকাশের না থাকে তাহলে যেই নাম্বার থেকে বিকাশ একাউন্ট খুলেছেন সেই নাম্বার থেকে *247# ডায়াল করুন.

ডায়াল করার পর আপনার সামনে অনেকগুলো অপশন চালু হবে। সেখান থেকে ৩ নাম্বারে দেখতে পাবেন অটো রিচার্জ নামে একটি অপশন রয়েছে। এবার 3 লিখে Reply বাটনে ক্লিক করুন।

এবার পরবর্তী পেজে আপনার সিমটি সেই অপারেটর সেই অপারেটরটি সিলেক্ট করতে হবে। অর্থাৎ আপনার আপারেটর যত নাম্বারে রয়েছে সেই নাম্বারটি লিখে Reply বাটনে ক্লিক করুন।

৩ নাম্বারে দেখতে পাবেন Auto-Recharge নামের অপশন রয়েছে। এবার 3 লিখে আবার রিপ্লাই বাটনে ক্লিক করতে হবে।

আপনাকে একটি এমাউন্ট সিলেক্ট করতে বলবে বা ৪ নাম্বার সিলেক্ট করে আরও এমাউন্ট সেট করতে পারবেন। অ্যামাউন্ট সিলেক্ট করে Reply বাটনে ক্লিক করুন।

এবার বিকাশের পিন নাম্বার দিয়ে Send বাটনে ক্লিক করলেই ব্যালেন্স অটো রিচার্জ সুবিধাটি চালু হয়ে যাবে বিকাশ থেকে।

অটো রিচার্জ কখন হবে

অটো রিচার্জ চালু করার পর আপনার মোবাইলে ব্যালেন্স ১০ টাকা বা তার কম হলেই নির্ধারিত মোবাইল নম্বরে নির্দিষ্ট রিচার্জ অ্যামাউন্ট স্বয়ংক্রিয়ভাবে পৌঁছে যাবে। কিন্তু ভয়ের কোন কারণ নেই গ্রাহক তার প্রয়োজন অনুযায়ী যেকোনো সময় অ্যামাউন্ট পরিবর্তন করার সুবিধা পাবেন।

সর্বোচ্চ কত টাকা পর্যন্ত অটো রিচার্জ করা যাবে

একজন গ্রাহক শুধুমাত্র তার নিজের নাম্বারে ২০ টাকা থেকে ১ হাজার টাকা পর্যন্ত অটো রিচার্জ করার সুবিধা পাবেন। যাহোক এর মোবাইলের ব্যালেন্স ১০ টাকা কিংবা তার কম হওয়া মাত্রই অটো রিচার্জ চালু হয়ে যাবে। কিন্তু অবশ্য এক্ষেত্রে আপনার বিকাশ একাউন্টে ওই পরিমাণ এর বেশি ব্যালেন্স থাকতে হবে। কারণ ব্যালেন্স না থাকলে আপনি কিভাবে টাকা পাবেন।

সর্বোচ্চ কতবার অটো রিচার্জ নিতে পারবেন

একজন গ্রাহক দিনে সর্বোচ্চ তিনবার অটো রিচার্জ সুবিধা নিতে পারবেন। তবে আরও একটি বাড়তি সুবিধা পাবেন সেটি হল নির্ধারিত অটো রিচার্জ এর পরিমাণ এর সাথে যদি কোন সংশ্লিষ্ট রিচার্জ প্যাকেজ বা অন্য কোন অফার প্যাকেজ থাকে তবে সেটিও মোবাইল অপারেটর দ্বারা সক্রিয় হতে পারে।

আরো জানুন অটো রিচার্জ সম্পর্কে

Bkash Auto Recharge Rules
Share your love
Salman Shemul☑️
Salman Shemul☑️
Articles: 20