পার্ট টাইম জবের ৫টি সুবিধা ও ৫টি অসুবিধা

বর্তমান সময়ে পার্ট টাইম জব খুবই জনপ্রিয় হয়ে দাঁড়িয়েছে, যা আপনি আমি কেউ অস্বীকার করতে পারব না। এখন অনেক মানুষ তাদের পড়ালেখার পাশাপাশি হোক কিংবা অন্যান্য ক্ষেত্রে পার্ট টাইম বা খণ্ডকালীন চাকরি করতে ভালোবাসেন। যা অনেক দেশের ছেলেমেয়েরাই পড়াশোনার ফাঁকে করে থাকেন।

তবে পার্টটাইম জবের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা ও ভালো-মন্দ দিকগুলো দেখে নেয়া ভালো। চলুন তাহলে দেখে নেই কয়েকটি সুবিধা ও অসুবিধা পার্টটাইম জবের।

পার্ট টাইম জবের সুবিধা

চলন তাহলে প্রথমদিকে পার্টটাইম জবের সুবিধাগুলো জেনে নেই

অভিজ্ঞতা

একজন মানুষকে তার জীবনে বিভিন্ন কাজে এক্সপেরিয়েন্সে লাভে অনেক সহায়তা করে। কারণ আপনি যখন কোন কাজ করবেন না তখন তার মর্ম বুঝতে পারবেন না। পড়াশোনা শেষ করার পর চাকরি জীবনে প্রবেশ করলে, পূর্ববর্তী কাজের অভিজ্ঞতাগুলোর বেশ কাজে দেয়।

যারা চাকরি দেন তারা প্রায়ই আশা করে থাকেন, যাদেরকে নিয়োগ দিচ্ছে তারা যেন অন্তত কাজের প্রতি মনোযোগী হয় এবং টিমের সাথে কাজ করার ক্ষেত্রে যেন কোন অসুবিধা না হয়। আর একজন মানুষকে পার্ট টাইম জব দুটো অভিজ্ঞতায় দিয়ে থাকে। এক কথায় বলতে গেলে পূর্বে কোন কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকলে সেটা আপনাকে অন্যান্য কাজে একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে।

স্কিল ডেভেলপ

প্রত্যেকটা কাজের জন্যই আমাদের সেই কাজের প্রতি স্কিল ডেভেলপ করতে হয়। পার্ট টাইম জব মানুষকে অনেক ধরনের ব্যক্তিরা অর্জন করতে সাহায্য করে যা তার পরবর্তী প্রফেশনাল জীবনে দারুণ কাজে দেয়। বিশেষ করে চাকরির ক্ষেত্রে কিংবা ব্যবসা উভয় ক্ষেত্রেই এটি মানুষকে অনেক স্কিন অর্জনে সহায়তা করে। যেমনঃ টিম ম্যানেজমেন্ট, অর্গানাইজেশন হ্যান্ডেলিং স্কিল, টাইম ম্যানেজমেন্ট ও বিভিন্ন মিটিং স্কিল ইত্যাদি।

নিজের খরচ

এই দিক দিয়ে পার্ট টাইম জব আমাদের আর্থিকভাবে অনেক সহায়তা করে থাকে। কারণ পার্ট টাইম জব এর মাধ্যমে একজন মানুষ পড়ালেখার পাশাপাশি তার নিজের আনুষাঙ্গিক সকল খরচ নিজেই চালাতে পারে। মোবাইল খরচ, টিউশন ফি, কেনাকাটা সহ নিজের যাবতীয় প্রয়োজনীয় ব্যয় ভার বহন করতে পারে। এর পাশাপাশি পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সাহায্য করতে পারে।

মানি ম্যানেজমেন্ট

যারা পরিবারের কাছ থেকে টাকা নেয় তারা টাকা ব্যয় করার ক্ষেত্রে কোন হিসাব-নিকাশ করে না। কিন্তু যখন নিজের পরিশ্রমের টাকা নিজের হাতে আসে তখন আমরা খুবই হিসাব করেই সে টাকা খরচ করি। পার্টটাইম জবের একটা অনেক বড় একটা সুবিধা কারণ এর মাধ্যমে আমরা কষ্ট করে আয় করা টাকা কে উপলব্ধ করতে পারি, যা আমাদের মানি ম্যানেজমেন্ট করার ক্ষেত্রে অনেক সহায়তা করে। তখন একজন মানুষ হিসাব নিকাশ করতে শুরু করে কোথায় এবং কতটুকু টাকা খরচ করতে হবে। 

খারাপ অভ্যাস ত্যাগ 

আমরা হয়তো টাইমে পার্ট টাইম জব করে থাকি সে সময় হয়তোবা বিভিন্ন খারাপ কাজে জড়িয়ে থাকতাম। কারণ বিভিন্ন খারাপ কাজে জড়িয়ে যায় বেকার মানুষ। হাতে অনেক সময় পড়ে থাকার ফলে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে দিতে বিভিন্ন খারাপ কাজে জড়িয়ে পড়ে কিংবা সময়কে মূল্য দিতে শিখে না। কিন্তু আপনি যতটুকু সময় পার্টটাইম কাজে জড়িত রয়েছেন তখন আপনার মনোযোগ কাজের প্রতি থাকে, এতে করে খারাপ কাজে জড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকেনা।

কিন্তু পার্ট টাইম জব করার ফলে ক্লান্ত শরীর নিয়ে রাতে তাড়াতাড়ি ঘুমানো যায়, এতে করে রাত জাগার অভ্যাস গড়ে ওঠে না। আমরা যখন পার্টটাইম জব করি তখন আমাদের একটা নিয়ম মাফিক জীবন যাপন করতে হয়।

পার্ট টাইম জবের অসুবিধা

আমরা জানি, প্রত্যেকটি কাজের যেমন সুবিধা রয়েছে তেমনি তার অসুবিধাও রয়েছে। এখানেও তাই রয়েছে, চলুন পার্টটাইম জবের কিছু অসুবিধা জেনে নিইঃ

পড়াশোনায় নেগেটিভ ইফেক্ট

যারা ছাত্র অবস্থায় পার্ট টাইম জব কিংবা চাকরি করেন তাদের অনেকের ক্ষেত্রে দেখা যায় পড়াশোনায় কিছুটা প্রভাব পড়ে। কারণ পার্ট টাইম জব কিংবা চাকরি করতে গিয়ে তারা তাদের পড়াশোনায় পর্যাপ্ত সময় ও মনোযোগ দিতে পারেনা। আবার জব করার ফলে শরীর খুবই ক্লান্ত থাকে, এতে পড়াশোনার জন্য প্রয়োজনীয় সময় বের করাটা অনেক ক্ষেত্রেই কঠিন হয়ে যায়। তাই পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করতে হলে আমাদের পার্ট টাইম জবের পাশাপাশি পড়াশোনায় অনেক মনোযোগ দিতে হয়।

স্বাস্থ্যের উপর ইফেক্ট

যারা পার্ট টাইম জব করে পড়ালেখার পাশাপাশি। তাদের অনেক জায়গায় দৌড়াদৌড়ি করে অনেক সময় দিতে হয়। পার্ট টাইম জবের পাশাপাশি ভার্সিটিতেও যেতে হয়, পড়াশোনার পেছনে সময় দিতে হয়, পরিবার ও বন্ধুবান্ধবের সময় দিতে হয়। এতে করে দেখা যায় অনেকের শরীর স্বাস্থ্যের উপর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। কারণ সকল কিছু ম্যানেজ করতে গিয়ে সে তার শরীরের সার্বিক যত্ন নিতে পারে না।

চাকরির নিরাপত্তা নেই

পার্টটাইম জবের নেগেটিভ দিক গুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে যেকোনো সময় এটি চলে যাওয়া। শুধু পার্ট টাইম জব নয় এর পাশাপাশি যেকোনো চাকরি চলে যাওয়ার কোন নিশ্চয়তা থাকে না। আপনি তাদের প্রয়োজন মত কাজ না করতে পারলে বা তাদের খুশি রাখতে না পারলে আপনাকে যেকোন সময় সেই চাকরি থেকে বের করে দিতে পারে।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?

Leave a Comment