Oneplus 10T 5G দাম ও স্পেসিফিকেশন – রিলিজ ডেট

Oneplus 10T 5G আর 10 pro মডেলটি দেখে মনে হবে এরা ভাইবোন। তবে এই স্মার্ফোনটি দ্রুত চার্জ হয় এবং আরও উন্নত মানের প্রসেসর রয়েছে এতে। তবে এতে নতুন কোন ডিজাইন আনা হয়নি।

Oneplus 10T 5G রিলিজ ডেট ও দাম

সম্প্রতি আগস্টের ৩ তারিখ লঞ্চ হবে Oneplus 10T 5G স্মার্টফোনটি। আর সম্ভবত ২৯ আগস্ট থেকে দেশের বিভিন্ন দোকান থেকে ক্রয় করা যাবে। স্মার্টফনতি আমাদের দেশের বাজারে পাওয়া যাবে ৬০-৬৫ হাজার টাকার মধ্যে।

Oneplus 10T 5G স্পেসিফিকেশন

প্রথমেই এর ডিসপ্লে হিসেবে থাকছে ৬.৭ ইঞ্চির ফ্লুয়িড অ্যামোল্ড ফুলএইচডি ডিসপ্লে, যার রিফ্রেশ রেট ১২০ হার্জ। ডিসপ্লের রেজুলেশন ১০৮০ x ২৪১২ পিক্সেল।

এবার এর প্রসেসর সেকশনে থাকছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮+ জেন ১ (Snapdragon 8+ Gen 1) অক্টাকোর ৫জি প্রসেসর। আর বিভিন্ন দেশের লিকস্টারের টইইটার থেকে জানা গেছে চিপসেটের আন্টোটো স্কোর ১১ লাখেরও বেশি। এর সাথে গ্রাফিক্স হিসেবে থাকছে শক্তিশালী এড্রেনো ৭৩০ (Adreno 730)। স্মার্টফোনটি চলবে অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক লেটেস্ট অপারেটিং সিস্টেম OxygenOS 12.1 এর মাধ্যমে।

Oneplus 10 5G স্মার্টফোনটির পেছনের দিকে থাকছে ৩টি ক্যামেরা। যার প্রধান সেন্সর হিসেবে থাকছে ৫০ মেগাপিক্সেলের একটি ওয়াইড সেন্সর, আর এতে সনির সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। আর দ্বিতীয় সেন্সর হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের একটি আল্ট্রা ওয়াইড সেন্সর। আর ৩ নাম্বার ক্যামেরা হিসেবে থাকছে শুধুমাত্র ২ মেগাপিক্সেলের মেক্রো সেন্সর।

তবে এত দামী একটি স্মার্টফোনে ২ মেগাপিক্সেলের মতো একটি সেন্সর যা আসলেই হতাশ হওয়ার মতো। তার উপর আবার এর পেছনের ক্যামেরা দিয়ে ৪কে তে সর্বোচ্চ ৩০ এফপিএসে ভিডিও করতে পারবেন। আর সেলফি ক্যামেরা দিয়ে শুধুমাত্র ১০৮০পি তে ৩০ এফপিএসে ভিডিও করতে পারবেন। আর এই স্মার্টফোনটিতে সামনের দিকে সেলফি ক্যামেরা হিসেবে থাকছে ১৬ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড ক্যামেরা।

আসা যাক এর ব্যাটারিতে, এই স্মার্টফনটিতে রয়েছে ৪৮০০mAh ব্যাটারি। ১২৫ ওয়াটের  SUPERVOOC চার্জার থাকবে এর সাথে।

Oneplus 10T স্মার্টফোনটির ওজন ২০৩.৫ গ্রাম।

আপনি যদি পারফরম্যান্সের যদি তাহলে স্মার্টফোনটি আপনার জন্য সেরা। আর যদি ক্যামেরার কথা চিন্তা করেন তাহলে এটি আপনার না কেনাই ভালো। 

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?