Walton Tick WSWD Smart Watch স্পেসিফিকেশন

বাংলাদেশী ব্র্যান্ড ওয়ালটন আরো একটি সুন্দর স্মার্টওয়াচ নিয়ে আসতে যাচ্ছে । যার নাম ওয়ালটন টিক WSWD (Walton Tick WSWD) স্মার্টওয়াচ। এই স্মার্টওয়াচটি পাওয়া যাবে ব্লাক, সিলভার, গ্রে এই ৩টি কালারে।

ওয়ালটনের এই স্মার্টওয়াচটি গোল আকৃতির। যার ডিসপ্লে হিসেবে থাকছে ১.৩২ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে। স্মার্টওয়াচটির সাইডে থাকবে মেটাল বডি ও পেছনে থাকবে প্লাস্টিকের বডি।

এই ঘড়িটিতে র‍্যাম থাকছে ১৯২ কেবি আর রম ১২৮ এম্বি।

স্মার্টওয়াচটিতে ব্লুটুথ ৫.০ থাকছে, যার ফলে স্মার্টফোনের সাথে কানেক্ট করতে কোন প্রকার সমস্যা হবে না। সহজেই ডিভাইসের সাথে কানেক্ট করতে পারবেন।

স্মার্টওয়াচটির ডিসপ্লে রেজুলেশন থাকছে ৩৬০x৩৬০। যার ফলে বোঝাই যাচ্ছে স্মার্টয়াচটির ডিসপ্লে খুবই ভালো মানের ও কালার কম্বিনেশন হবে খুবই নিখুত।

তবে ঘড়িটির ওয়াটার রেসসটেন্স রেটিং আইপি ৬৭ (IP 67)। যার ফলে আপনি এটা কোন গভির পানির নিচে নিয়ে যেতে পারবেন না। তবে ওযু করার ক্ষেত্রে কিংবা বৃষ্টি্তে ভিজলে তেমন কোন সমস্যা হবে না।

Walton Tick WSWD এই স্মার্টওয়াচটির ব্যাটারি সেকশনে থাকছে ২৬০ মিলি অ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি। যার ফলে একে স্ট্যান্ডবাই মোডে রেখে দিলে এর চার্জ থাকবে টানা ৩০ দিন। তবে নর্মাল ব্যবহারে চার্জ থাকবে ১০ দিনের মধ্যেই আর বেশি ব্যবহার করলে ৩-৫ দিন।

এতে থাকছে ব্লুটুথ কলিং সাপোর্টেড অর্থাৎ কেউ কল করলে আপনি স্মার্টওয়াচের সাহয্যে কল রিসিভ করে কথা বলতে পারবেন আবার কল করতেও পারবেন।

এতে থাকছে জিপিএস সিস্টেম। যার ফলে মোবাইলের সাথে কানেক্ট করে স্মার্টওয়াচটির সাহায্যে লোকেশন ট্রাক করতে পারবে।

৩৭টি স্পোর্টস মোড রয়েছে এতে। যার ফলে আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী আপনি স্পোর্টস মুডগুলো ব্যবহার করতে পারবেন।

ওয়াচতিতে হার্ট রেট সেন্সর হিসেবে ব্যবহার করা হয়ছে VC32S। যা প্রায় ৯০-৯৫% সঠিক রেজাল্ট দিতে সক্ষম। তাছাড়াও এতে রয়েছে স্লিপ মনিটরিং, স্মার্ট রিমাইন্ডার, মিউজিক কন্ট্রোল, ফটো কন্ট্রোল।

Walton Tick WSWD Smartwatch এর ওয়ারেন্টি থাকছে ৬ মাস।

Walton Tick WSWD Smartwatch

Walton Tick WSWD Smart Watch

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?