গ্রীস্মের গরমে স্বাস্থ্যের যত্ন

অতিরিক্ত গরমের কারণে মানুষ বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে প্রতিনিয়ত। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি সমস্যা হচ্ছেঃ পানিস্বল্পতা, কোষ্ঠকাঠিন্য, প্রস্রাবে সংক্রমণ, সর্দি-কাশি, হিট স্ট্রোক, ডায়রিয়া, আমাশয়, জ্বর, ইনফ্লুয়েঞ্জা ও জন্ডিস। আর এসব সমস্যা থেকে বাঁচার জন্য অবশ্যই আমাদের খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন আনতে হবে এবং বেশি বেশি তরল খাবার গ্রহণ করতে হবে।

গরমের কারণে শরীরের অতিরিক্ত ঘামার কারনে শরীর থেকে প্রয়োজনীয় পানি বেরিয়ে যায়, যার ফলে পানিশূন্যতা দেখা দেয়। আর এই সমস্যা সমাধানের জন্য গ্রীষ্মে তরল জাতীয় খাবার বেশি বেশি করে খেতে হবে। যেমনঃ ডাবের পানি, লেবুর শরবত, বিভিন্ন ফলের রস ইত্যাদি স্বাস্থ্যকর পানীয় পান করতে হবে। চা, কফি, কোল্ড ড্রিংকস, প্যাকেটজাত জুস ইত্যাদি না খাওয়াই উত্তম। এগুলো আপনার শরীরের উপকারের চেয়ে ক্ষতি করবে বেশি।

গরমের সময় প্রস্রাবের সংক্রমণ খুব বেশি দেখা দেয়। এ সময় অ্যাসিডিক বা টক জাতীয় ফল খেলে উপকার পাবেন। এছাড়া দারুচিনি, রসুন, মধু ইত্যাদি অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল খাবার  ভালো কাজ করে।

অতিরিক্ত গরমের কারণে অনেকেই হিট স্ট্রোক করেন। তাই এই সময় ডাবের পানি, লাউ তরকারি, পেঁপে ভাজি বা পাতলা ঝোল, করলা, তরমুজ এই খাবারগুলো খেলে তা আপনার শরীরে পানি দীর্ঘ সময় ধরে রাখতে সাহায্য করবে।

গরমের সময় আমাদের মধ্যে অনেকেই রাস্তার খোলা পরিবেশে বানানো টং এর দোকান থেকে আখের রস, লেবুর শরবত, বেলের শরবত, অ্যালোভেরার জুস, চিনি দেয়া বিভিন্ন ফলের রস খেয়ে থাকে। বেশিরভাগ জায়গায় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ এবং দূষিত পানি দ্বারা এগুলো তৈরি করা হয়। যার কারণে বিভিন্ন পানিবাহিত রোগ যেমনঃ টাইফয়েড, হেপাটাইটিস, ডায়রিয়া, আমাশয় ইত্যাদি দেখা দেয়। তাই খোলা পরিবেশের এবং অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের যেকোনো খাবার পরিহার করুন।

যেকোনো ধরনের পেটের সমস্যার জন্য যে খাবারগুলো খেলে উপকার পাবেন তা হলোঃ ডাবের পানি, টক দই, কাঁচা কলা, পেঁপে, আপেল, হলুদ চা, তুলশী চা, ইসবগুলের ভুষি, জিরা পানি, আদা। এছাড়া বিভিন্ন গৃষ্ম কালীন সবজি যেমনঃ চিচিঙ্গা, ঝিঙ্গা, ধুন্দল, শসা, পটল ইত্যাদি পেটের সমস্যার জন্য বেশ উপকারী।

অতিরিক্ত গরম এবং ঋতু পরিবর্তনের কারণে অনেকেরই ঠান্ডা, সর্দি, কাশি, গলা ব্যথার সমস্যায় ভোগেন। এ সময় ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফল বেশ ভালো কাজে দেয়। উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফল যেমনঃ পেয়ারা, কমলা, আনারস, মাল্টা, ক্যাপসিকাম ইত্যাদি। এছাড়া সর্দি, কাশি, গলা ব্যথা নিরাময়ের জন্য বেশ কার্যকর হলো গরম সুপ, তুলসী চা, আদা চা, গ্রিন টি, বিভিন্ন হারবাল চা। তাছাড়া গরম পানির সাথে হালকা মধু, আদা, দারচিনি, লবঙ্গ ইত্যাদি মসলা মিশিয়ে ফুটিয়ে খেলে ভালো ফল পাবেন।

গ্রীষ্মকালে যে খাবার খাওয়া একদম উচিত নয়

অতিরিক্ত মসলাযুক্ত খাবার, ভাজাপোড়া, রাস্তার খোলা খাবার। এই খাবারগুলো সারা বছরই না খাওয়া উত্তম। তাছাড়া গ্রীষ্মকালে গরু-খাসির মাংস, ভুরি, কলিজা, পায়া ইত্যাদি না খাওয়া ভালো।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?