কাতার বিশ্বকাপের খরচ প্রায় ২০ লক্ষ ৫৮ হাজার কোটি টাকা

কাতার বিশ্বকাপের খরচ

বিশ্বকাপের বাকি আর মাত্র ৪ মাস। বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ কাতার ইতিমধ্যেই মাঠের সকল প্রস্তুতি সেরে নিয়েছে। বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করা দলগুলোর জন্য নিশ্চিত করা হচ্ছে পাঁচ তারকা মানের সুযোগ-সুবিধা। খেলোয়াড়দের আবাসন ব্যবস্থার পাশাপাশি তাদের অনুশীলন ব্যবস্থা বিশ্বমানের করার প্রতি গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

বিশ্বকাপের ব্যস্ততা ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে। দোহায় দু’দিনব্যাপী ওয়ার্কশপ মাত্র শেষ হয়েছে। আর সেখানে ৩২ দলের প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেছিলেন। এই ওয়ার্কশপে বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর আবাসন, অনুশীলন ও নিরাপত্তা বিষয়ক নানা দিক নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

ফুটবল বিশ্বকাপের ইতিহাসে কাতার বিশ্বকাপই হতে যাচ্ছে সবচেয়ে ব্যয়বহুল বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপকে কেন্দ্র করে গড়ে তোলা হোটেল, রাস্তা, পাবলিকে স্পেস, ট্রান্সপোর্ট এবং স্টেডিয়ামের সহ ধারণা করা হচ্ছে কাতার বিশ্বকাপের মোট ব্যয় ২২০ বিলিয়ন ডলার। বাংলাদেশি টাকায় যা প্রায় ২০ লক্ষ ৫৮ হাজার কোটি টাকা।

কাতারের বিখ্যাত সব হোটেল গুলো বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর জন্য প্রস্তুত রাখা হচ্ছে। ইতিমধ্যে ইংল্যান্ড, ফ্রান্স ও ব্রাজিলের মতো বড় দলগুলো বিশ্বকাপে চলাকালীন কোন হোটেলে থাকবে তা চূড়ান্ত করে ফেলেছে। সব দলগুলোর ডিম বেজ নির্ধারণ এর আগে হোটেল রুমের পাশাপাশি জিম ও অনুশীলনের সুযোগ সুবিধা আছে কিনা সে বিষয়ে গুরুত্ব দিচ্ছে।

বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য কাতার বেশ কয়েকটি নতুন স্টেডিয়াম তৈরি করেছে। সেই সাথে বেশকিছু অনুশীলন ভেন্যু নির্মাণ করেছে কাতার।

আয়োজক দেশ কাতারের  মূল চ্যালেঞ্জ বিশ্বকাপ দেখতে যাওয়া দর্শকদের আবাসন নিশ্চিত করা। কাতারের আয়তন ৪,৪১৬ বর্গমাইল ও জনসংখ্যা প্রায় ২৭ লক্ষ। কাতারের মত এত ছোট দেশে বিশ্বকাপ উপলক্ষে আরো প্রায় ১৫ লক্ষ মানুষের সমাগম হতে পারে। আর এই বিশাল সংখ্যক মানুষের চাপ কাতার কিভাবে সামাল দেয় সেটাই এখন দেখার বিষয়।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?