ট্রাম্পের টুইটার অ্যাকাউন্ট ফেরত দেবে ইলন মাস্ক

ট্রাম্পের টুইটার অ্যাকাউন্ট ফেরত দেবে ইলন মাস্ক

সম্প্রতি ইলন মাস্ক জানিয়েছে যে সে যদি পুরোপুরি টুইটারের নিয়ন্ত্রণ পায় তাহলে অবশ্যই অবশ্যই ট্রাম্পের ব্যান হওয়া টুইটার অ্যাকাউন্ট ফেরত দিবে।

যদিও এখনও পুরোপুরি টুইটারের মালিক হতে পারেনি ইলন মাস্ক তবে এজন্য তাকে আরো দুই থেকে তিন মাস অপেক্ষা করতে হবে।

ইলন মাস্ক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে যে আসলে ট্রাম্পের একাউন্ট বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল এ সিদ্ধান্তটি একটি নৈতিক ভুল ছিল এবং তা অবশ্যই বোকামি ছিল।

ইলন মাস্ক যেহেতু আশ্বাস দিয়েছে তাই বলা যায় যে ট্রাম্প আবার তার টুইটার অ্যাকাউন্ট ফেরত পাচ্ছে। ট্রাম্প এর ক্ষেত্রে দেখা যায় যে তার একাউন্ট বাতিল করে তাকে চুপ করানো যায়নি। আর এক জবাব হিসেবে ট্রাম্প নিজেই একটি সোশ্যাল মিডিয়া খুলেছেন এবং তার কন্ঠকে আরো জোরালো করেছেন।

যখন ট্রাম্পের একাউন্ট বাতিল করা হয়েছিল তখন টুইটার জানিয়েছিল যে তাঁর অ্যাকাউন্টটি পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়া হবে। কিন্তু পরবর্তীতে তার ব্যাপারে টুইটার কি ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে তার কিন্তু আসলে তারা শেয়ার করে নাই আর। এখন দেখার বিষয় যে টুইটারের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ যখন ইলন মাস্কের কাছে যাবে তখন কি হয় ট্রাম্পের একাউন্টের।

ইলন মাস্ক এবং জ্যাক ডরসি মনে করেন যে টুইটার ব্যবহারকারীদের ক্ষেত্রে স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করা যাবে কম ক্ষেত্রেই। অনেক সময় দেখা যায় অনেকে কোন অবৈধ কাজকে সমর্থন করে তাদের পক্ষে লেখেন ওই ক্ষেত্রে হয় ব্যবহারকারীকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা উচিত অথবা সমর্থন করা পোস্টটি হাইড করে রাখা উচিত।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?