পিএইচডি করার যোগ্যতা কি

পিএইচডি করার যোগ্যতা কি

আমরা জানি, পিএইচডি(PHD) এর পূর্ণরূপ ডক্টর অফ ফিলোসফি (Doctor of Philosophy)

আমাদের দেশে অনেক শিক্ষার্থী রয়েছে যারা স্নাতকোত্তর ডিগ্রী বা মাস্টার্স শেষ করার পরেও তাদের শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যেতে অনেক ইচ্ছে। তাদের জন্য রয়েছে বিকল্প দুটি রাস্তা। যেমন, এম.ফিল এবং পিএইচডি। এগুলো গবেষণাভিত্তিক উচ্চতর ডিগ্রী। 

এম.ফিল হলো একটি একাডেমিক গবেষণা ডিগ্রী এবং অপরদিকে পিএইচডি একটি আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত সর্বোচ্চ স্তরে গবেষণা ডিগ্রী কোর্স।

বিশ্বের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় গুলো নতুন কিছু যোগ করার স্বীকৃতি স্বরূপ পিএইচডি ডিগ্রী প্রদান করে থাকে।

পিএইচডি হল একটি নির্দিষ্ট বিষয় সম্পর্কে উন্নত গবেষণা। তবে পিএইচডি তিনটি ফরম্যাটে পাওয়া যায় যেমন ফুলটাইম, পার্ট টাইম  এবং অনলাইন পিএইচডি।

তবে পিএইচডি করতে সর্বনিম্ন ৩ বছর লাগে তবে এটি অনেক ক্ষেত্রেই বিষয় অনুযায়ী পাঁচ থেকে ছয় বছর পর্যন্ত লাগতে পারে।

পিএইচডি করার যোগ্যতা

পিএইচডি করার জন্য সেই শিক্ষার্থীকে অবশ্যই কিছু মৌলিক যোগ্যতা থাকতে হবে আর সেই যোগ্যতা গুলো হল

শিক্ষার্থীকে মাস্টার্স ডিগ্রি থাকতে হবে পিএইচডি পড়ার জন্য

শিক্ষার্থীদের মাস্টার ডিগ্রী কোর্সের কমপক্ষে ৫০-৫৫% গ্রেট থাকতে হবে।

যে সকল শিক্ষার্থী বা প্রার্থী গবেষণার ক্ষেত্রে অভিজ্ঞ তাদের বেশি অগ্রাধিকার দেওয়া হয়।

পিএইচডি করার জন্য একজন শিক্ষার্থীকে স্নাতক পর্যায়ে অবশ্যই ভাল পারফরম্যান্স দেখাতে হয়।

আবেদনের যোগ্য হওয়ার জন্য আপনার প্রাসঙ্গিক বিষয়ে মাস্টার ডিগ্রীরও প্রয়োজন হতে পারে।

কলা ও মানবিক পিএইচডি করার জন্য অবশ্যই মাস্টার ডিগ্রী প্রয়োজন হয়। তবে কিছু ক্ষেত্রে যেমন বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, প্রকৌশল এবং গণিতের পিএইচডির জন্য স্নাতক ডিগ্রী যথেষ্ট হতে পারে। তবে হল নির্ভর করে পৃথক ডিগ্রী প্রোগ্রামের উপর।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?