ফোন নাম্বার দিয়ে লোকেশন বের করবেন কিভাবে

বর্তমান যুগ তথ্য প্রযুক্তির যুগ। সময়ের সাথে সাথে মানুষের জীবনে তথ্যপ্রযুক্তির বা আধুনিকতার ছোঁয়া লেগেছে প্রতিটি ক্ষেত্রে।

মানুষ এখন তার প্রতিটি কাজে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার করে থাকে। কারণ এই তথ্যপ্রযুক্তির রয়েছে অসংখ্য উপকারী দিক যা মানুষের কাজকে সহজ করে তুলেছে। যার ফলে মানুষ কঠিন কাজগুলো সহজেই করতে পারে।

একটা সময় ছিল যখন আমরা ঘরে বসেই কারো লোকেশন জানার চেষ্টা করতাম মোবাইল নাম্বারের মাধ্যমে। কিন্তু তখন তা সম্ভব ছিল না।

কিন্তু প্রযুক্তির কল্যাণে এখন অনেক কিছুই সহজ হয়েছে। কারন তখন ঘরে বসেই কারো ঠিকানা কিভাবে লোকেশন বের করা অসম্ভব ছিল।

এখন তা সম্ভব হয়েছে আর আজকে আমরা এই বিষয় নিয়ে আলোচনা করব কিভাবে আপনি ফোন নাম্বারের মাধ্যমে সহজে কারো লোকেশন বের করতে পারবেন।

SPYIC

যেকোনো স্মার্টফোনের মধ্যে থাকা সিম কার্ডের মাধ্যমে খুব সহজেই ট্রাক করা সম্ভব  যদিও সিম কার্ডের মাধ্যমে নিখুঁতভাবে কারো লোকেশন জানা সম্ভব নয়। কিন্তু জিপিএস (GPS) ও পাবলিক WAN এর মাধ্যমে অনেক বেশি নিখুঁতভাবে লোকেশন জানা সম্ভব।

SPYIC এর মাধ্যমে যে শুধু লোকেশন জানা সম্ভব এমন নয় বরং ফোনের কল লিস্ট, কন্টাক্ট, মেসেজ, ব্রাউজিং হিস্ট্রি সহ বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ দেখে নেয়া যাবে।

Root এক্সেস সহ এই ফিচারটি ব্যবহার করলে অনেক বেশি ফিচার ব্যবহার করা যায়। Root এক্সেস এছাড়াও এটি ব্যবহারের সুবিধা রয়েছে। তবে সাবধান Root এক্সেস চালু করলে আপনার ফোনের ওয়ারেন্টি বাতিল হয়ে যাবে।

SPYIC এপটি এন্ড্রয়েড ফোনে ইন্সটল করার জন্য আপনাকে তার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করতে হবে। এটি একটি শক্তিশালী টোল লোকেশন বের করার কাজে লাগবে। 

তবে মূল কথা হলো বিনামূল্যে এই অ্যাপস টি ইন্সটল করা গেলেও সাবস্ক্রিপশন খরচ ছাড়া এটি ব্যবহার সম্ভব নয়। অ্যাপস এর ভিতর সাবস্ক্রিপশন ফি দেওয়া থাকে সেই অনুযায়ী ক্রয় করে আপনি এটি ব্যবহার করতে পারবেন।

এটি ব্যবহারের জন্য আপনাকে তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে সাইন আপ করে অ্যাপসটি ডাউনলোড করতে হবে। এরপর অ্যাপ ইন্সটল করে সেখানে দেওয়া নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করলে আপনি সহজেই লোকেশন এবং অন্যান্য বিষয়গুলো দেখতে পাবেন।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?