জিপিএস এর সুবিধা

জিপিএস/GPS এর পূর্ণরূপ Global Positioning System. জিপিএস এর মাধ্যমে পৃথিবীতে যেকোনো বস্তুর অবস্থান নির্ণয় করা যায়। আজকে আমরা আলোচনা করবো জিপিএস এর সুবিধা গুলো নিয়ে।

পৃথিবীতে এ পর্যন্ত তথ্য প্রযুক্তি আবিষ্কার করা হয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে জিপিএস। জিপিএস তৈরি করা হয়েছিল ১৯৫৭ সালে সোভিয়েত ইউনিয়ন যখন প্রথম স্পুটনিক চালু করেছিল। 

আমেরিকান বিজ্ঞানীদের একটি দল স্পুটনিকের রেডিও ট্রান্সমিশন নিরীক্ষণ করেছিলেন। মূলত তারাই এই জিপিএস আবিষ্কার করেন।

২৪ টি স্যাটেলাইট বা কৃত্রিম উপগ্রহ রয়েছে জিপিএস সিস্টেমে। প্রতি ১২ ঘন্টায় এই স্যাটেলাইটগুলো পৃথিবীকে একবার প্রদক্ষিণ করে। যে কোন বস্তুর অবস্থান নির্ণয় করার জন্য চারটি স্যাটেলাইট ব্যবহার করা হয়। 

অটোমোবাইল, স্মার্টফোন, স্মার্ট ঘড়ি, বিভিন্ন ধরনের যানবাহন যেমনঃ বিমান, রেল, বাস, জাহাজ ইত্যাদি এসবের মধ্যে জিপিএস ব্যবহৃত হয়ে থাকে। 

যে কোনো স্থানের অবস্থান খুঁজতে, এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাওয়ার পথ নির্দেশ, যেকোনো ব্যক্তি বা বস্তুর অবস্থান জানার জন্য, সঠিক মানচিত্র তৈরির জন্য, সঠিক সময় নির্ধারণের জন্য, শত্রুসেনাদের ট্রেকিং করতে, বড় বড় শহরের ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ, জিপিএস ব্যবহার করা হয়।

জিপিএস ব্যবহারের সুবিধা

যেকোনো জায়গার আবহাওয়ার তথ্য জিপিএস এর মাধ্যমে জানা যায়। 

কোন জায়গার ম্যাপ এবং অবস্থান বিশ্লেষণ করার জন্য জিপিএস সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

কোন অচেনা জায়গায় যাওয়ার সময় জিপিএস পথ দেখাতে সাহায্য করে।

রেস্টুরেন্ট, হোটেল, শপিং মল, পেট্রলপাম ইত্যাদি খুব সহজে খুঁজে বের করা যায় জিপিএস এর মাধ্যম। 

যুদ্ধের সময় শত্রুপক্ষের অবস্থান জানা যায় জিপিএস ব্যবহার করে। 

কোন অপরাধীকে ট্র্যাক করা যায় জিপিএস এর সাহায্যে।

জিপিএস ব্যবহার করে বিভিন্ন যানবাহন যেমনঃ বাস, জাহাজ, ট্রেন, প্লেন ইত্যাদির অবস্থান সম্পর্কে জানা যায়। 

জিপিএস এর মাধ্যমে আপনারা এখন থেকে কোন ঝামেলা ছাড়াই জমির সীমানা বের করতে পারবেন যারা জায়গা জমি নিয়ে কাজ করেন।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?