মোবাইলে গেম খেলা কি হারাম

মোবাইলে গেম খেলা কি হারাম

কোরআন ও হাদিসের কোথায় লেখা আছে মোবাইলে গেম খেলা হারাম?

এই প্রশ্নের উত্তরের আগে আমাকে একটা প্রশ্নের উত্তর দিন গাঁজা, ইয়াবা, হিরোইন এগুলো হারাম নাকি হালাল? কোরআন হাদীসের কোথাও কি ইয়াবা হিরোইন ইত্যাদি হারাম এগুলো উল্লেখ করা আছে?

কোরআন নাজিল হয়েছে আজ থেকে ১৪০০ বছর পূর্বে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মোহাম্মদ (সঃ) এর উপর। কুরআন ও হাদিসে প্রত্যেক মানুষের সকল বিষয়ের সমাধান রয়েছে। কোন জিনিস হালাল, কোন জিনিস হারাম, কোনটা জায়েজ, কোনটা নাজায়েজ যায় সকল বিষয় সম্পর্কে কোরআন ও হাদিসে বিস্তারিত রয়েছে।

আল্লাহ তা’আলা পবিত্র কুরআনের (সূরা মায়িদাহ, আয়াত ৯০) বলেন, হে মুমিনগণ নিশ্চয়ই মদ, জুয়া, প্রতিমা-বেদী, লটারি ইত্যাদি নাপাক ও শয়তানের কাজ সুতরাং তোমরা তা পরিহার করো, যাতে তোমরা সফলকাম হতে পারো। 

এই আয়াতে নেশাদ্রব্য বোঝাতে খামারু শব্দটি ব্যবহার করা হয়েছে। যার অর্থ শুধু মদ নয় বরং সকল নেশাজাতীয় দ্রব্য এর অন্তর্ভুক্ত। 

যেমনঃ এখন বাংলাদেশ ফুটবল দলে যে ১১জন খেলোয়ার আছে, কালকে অন্য ১১ জন খেললেও কিন্তু তারা বাংলাদেশের হয়ে ওই প্রতিনিধিত্ব করছে।

ঠিক খামারু এর ব্যাপার টাও এমন, দুনিয়াতে যত নেশাদ্রব্য আসুক না কেন সকল ধরনের নেশাদ্রব্য খামারু এর বিধানে পড়বে।

রাসুল (সাঃ) বলেন, যে ব্যক্তি ‘নারদ’ খেলে সে যেন তাঁর হাতকে শূকরের গোশত ও রক্ত দিয়ে রাঙালো। (মুসলিমঃ ২২৬০) 

এ হাদীসে রাসূল (সাঃ) ‘নারদ’ শব্দের মাধ্যমে দাবা খেলা বুঝিয়েছে। এখানে দাবা খেলা বোঝালেও দাবার মতো যত খেলা আছে সব খেলা নারদ এর অন্তর্ভুক্ত। 

খামারু শব্দ দিয়ে যেমন শুধু মদ না সকল ধরনের নেশা জাতীয় দ্রব্য বুঝিয়েছেন ঠিক তেমনি নারদ দিয়ে শুধু দাবা নয় দাবা জাতীয় যতো খেলা আছে সব বুঝিয়েছেন। দাবা জাতীয় খেলা গুলোর বৈশিষ্ট্য হলোঃ যেই খেলা খেললে বুদ্ধি খরচ হয়. সময় নষ্ট হয় কিন্তু শারীরিক কোন ব্যায়াম হয় না। 

যেমন লুডু, কেরাম বোর্ড, মোবাইল ও কম্পিউটার গেমস ইত্যাদি সব নারদ এর অন্তর্ভুক্ত। 

মোবাইল বা কম্পিউটারে আপনি ফুটবল, ক্রিকেট, হকি যাই খেলেনা না কেন এগুলো সব হারাম, কারন আপনি এখানে শরীর দিয়ে খেলছেন না বুদ্ধি দিয়ে খেলছেন, সময় অপচয় করেছেন আবার ব্যায়ামও হচ্ছে না। 

যে কোন কাজ যা মানুষকে আল্লাহর স্মরণ থেকে দূরে রাখে তাই হারাম। গেমস খেলার সময় আমরা সম্পূর্ণভাবে গেমস এর মধ্যে মগ্ন থাকি কোন দিকে খেয়াল থাকে না। সুতরাং বোঝা যায় সকল প্রকার গেমস হারাম।

সুতরা মোবাইল বা কম্পিউটারে গেমস খেলা মানে আপনি আপনার নিজের হাতকে শূকরের রক্ত মাংসে  রাঙিয়ে নিলেন। 

এখনি আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারে থাকা সকল ধরনের গেমস ডিলিট করে ফেলুন। এছাড়া আপনার ঘরের যদি দাবা, লুডু থাকে সেগুলো ছিঁড়ে ফেলে দিন।

ইসলামিক বিষয়গুলো সম্পর্কে আরো গভীরভাবে জানতে কোন বিজ্ঞ আলেমের সাথে আলোচনা করুন।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?