সাজেক ভ্যালি ভ্রমণ খরচ

বর্তমান সময়ে ভ্রমণ পিপাসু মানুষের সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি স্থান সাজেক ভ্যালি (Sajek Valley)। এটি বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বিভাগের, রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলায় অবস্থিত। 

সাজেক ভ্যালি সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১৮০০ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত। রাঙ্গামাটি জেলায় সাজেক এর অবস্থান হলেও রাঙ্গামাটি এর চেয়ে খাগড়াছড়ি থেকে সাজেক যাতায়াত অনেক সহজ। রাঙ্গামাটি থেকে সাজেক ভ্যালি দূরত্ব ১৩৫ কিলোমিটার আর খাগড়াছড়ি থেকে সাজেক ভ্যালির দূরত্ব ৬৫ কিলোমিটার। (গুগল ম্যাপ)

সারাবছরই অপরূপ বর্ণিল সাজে সেজে থাকে সাজেক। সাজেক ভ্যালিতে আপনি সারা বছরই ভ্রমণ করতে পারবেন। তবে জুলাই থেকে নভেম্বর মাস সাজেক ভ্রমণের জন্য সেরা সময়।

সাজেক যাবেন কিভাবে

ঢাকা থেকে খাগড়াছড়ি যাওয়ার ভাড়া 

ঢাকা থেকে খাগড়াছড়ির উদ্দেশ্যে বিভিন্ন বাস ছাড়ে। খাগড়াছড়ি যাওয়ার বাস গাবতলী, কলাবাগানসহ শহরের বিভিন্ন প্রান্তে পাবেন। 

নন এসি বাস যেমন শ্যামলী, হানিফ এন্টারপ্রাইজ, সৌদিয়া, এস আলম, ঈগল, শান্তি পরিবহন ইত্যাদি বাস। (ভাড়া ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা) 

এসি বাস যেমনঃ হানিফ এন্টারপ্রাইজ, শ্যামলী, রিলাক্স ট্রান্সপোর্ট, দেশ ট্রাভেলস, ইকোনো ইত্যাদি বাস। (ভাড়া ১০০০ থেকে ১৫০০ টাকা)

খাগড়াছড়ি থেকে সাজেক যাওয়ার ভাড়া

খাগড়াছড়ি শহরের শাপলা চত্বর থেকে সাজেক ভ্যালি যেতে পারবেন। জীপ গাড়ি বা চান্দের গাড়ি, পিকআপ গাড়ি, সিএনজি রিজার্ভ নিয়ে সাজেক ভ্যালি যেতে পারবেন। 

সাজেক যাওয়া আসার ভাড়া

সিএনজি – ৪,০০০ থেকে ৫,০০০ টাকা

পিকআপ গাড়ি – ৬,০০০

জীপ গাড়ি – ৬,০০০ 

সাজেক একরাত থাকলে ভাড়া পড়বে 

পিকআপ গাড়ি – ৮,৩০০

জীপ গাড়ি – ৭,৭০০

আলুটিলা, রিচাং ঝর্ণা, ঝুলন্ত ব্রিজ এগুলো সহ ১রাতের জন্য সাজেক যেতে চান তাহলে খরচ হবেঃ

পিকআপ গাড়ি – ১০,৪০০

জীপ গাড়ি – ৯,০০০ 

সাজেক দুইরাত থাকলে ভাড়া পড়বে 

পিকআপ গাড়ি – ১১,১০০

জীপ গাড়ি – ৯,৬০০

আলুটিলা, রিচাং ঝর্ণা, ঝুলন্ত ব্রিজ এগুলো সহ ২ রাতের জন্য সাজেক যেতে চান তাহলে খরচ হবেঃ

পিকআপ গাড়ি – ১১,১০০

জীপ গাড়ি – ৯,৬০০

এছাড়া আপনারা যদি একা বা দু-তিনজন হন তাহলে অন্য গ্রুপের সাথে শেয়ার করে যেতে পারবেন।

খাগড়াছড়ি হতে দিঘীনালা হয়ে সাজেক যেতে পারবেন। খাগড়াছড়ি থেকে দিঘীনালা যেতে বাস ভাড়া লাগে ৪৫ টাকা আর মোটরসাইকেল ভাড়া জনপ্রতি ১০০ টাকা। দীঘিনালায় সকালে গেলে আপনাকে ৯:৩০ এর মধ্যে পৌঁছাতে হবে আর বিকালে গেলে ২:৩০ এর মধ্যে পৌঁছাতে হবে। দীঘিনালা থেকে বাকি পথ নিরাপত্তার জন্য আপনাকে সেনাবাহিনী রক্ষীবাহিনী বা এসকোর্টে যেতে হবে। 

সাজেক ভ্যালিতে কোথায় থাকবেন

প্রায় একশর উপরে রিসোর্ট ও কটেজ আছে সাজেক ভ্যালিতে থাকার জন্য। রিসোর্টের মানের উপরে নির্ভর করছে রিসোর্ট ভাড়া।

একরাতের রুম ভাড়া ১,৫০০ থেকে ১৫,০০০ টাকা পর্যন্ত লাগবে। সাজেকের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি রিসোর্টঃ সাজেক রিসোর্ট (ভাড়া ১০,০০০-১৫,০০০ টাকা), রিসোর্ট রুংরাং (ভাড়া ২,০০০-৩,৫০০ টাকা), মেঘপুঞ্জি রিসোর্ট (ভাড়া ৪,০০০-৪,৫০০ টাকা), রুন্ময় রিসোর্ট (ভাড়া ৪,০০০-৫,০০০ টাকা), মেঘ মাচাং (ভাড়া .৩,৫০০-৪,৫০০ টাকা), ম্যাডভেঞ্চার রিসোর্ট (ভাড়া ৩,৫০০-৪,০০০ টাকা), জুমঘর ইকো রিসোর্ট (ভাড়া ৪,০০০ টাকা), লুসাই কটেজ (ভাড়া ২,৫০০-৪,৫০০ টাকা), আলো রিসোর্ট (ভাড়া ১,০০০-১,৫০০ টাকা)

সাজেকের খাবার খরচ

সব রিসোর্টে খাবারের ব্যবস্থা আছে। খাবারের এর মান অনুযায়ী খাবারের দাম। আগেই বলে রাখলে রিসোর্ট কর্তৃপক্ষ সেই খাবো রান্না করে দিবে। জনপ্রতি ১০০ থেকে ২৫০ টাকা পর্যন্ত লাগতে পারে প্রতিবেলার খাবারে। 

খাবারের মেনু হিসেবে রয়েছে ভাত, আলুভর্তা, মুরগির মাংস, ডাল ইত্যাদি। পেঁপে, আনারস, কলা ইত্যাদি ফল খুব সস্তায় সাজেকে পাবেন।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?