সিএসএস এনজিও

সিএসএস এনজিও

সিএসএস মূলত একটি এনজিও সংস্থা। যারা বাংলাদেশ প্রত্যন্ত অঞ্চলে নিম্নবিত্ত এবং নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষদের আর্থিক সহযোগিতা করেন। 

সিএসএস এনজিও ১৯৭২ সালের দিকে শুরু করা হয়। এটি শুরু করেন স্বর্গীয় রেভারেন্ড পল মুন্সি মহোদয়। তারা ২০২২ সালে পঞ্চাশ বছর পূর্ণ করে। 

সিএসএস এনজিও সামাজিক উন্নয়নে অনেক অবদান রয়েছে। আমরা সবাই জানি যুদ্ধপরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের অবস্থা কি হয়েছিল। প্রায় সকল এনজিও সংস্থার একটা মূল উদ্দেশ্য থাকে তা হল সামাজিকভাবে উন্নয়নে অবদান রাখা। সিএসএস এনজিও যেহেতু যুদ্ধপরবর্তী সময়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল তাই তাদের ক্ষেত্রে প্রাপ্তিটা অনেক বেশি।

আমরা জানি মুক্তিযুদ্ধের পর পরে আমাদের প্রায় ৩০ লাখ মানুষের প্রাণহানি ঘটে এবং প্রায় ১০ লাখ মানুষকে পুরোপুরি গৃহহীন করে। আর বাংলাদেশের পুরো অবকাঠামোকে অনেক ক্ষতির মুখে ফেলে দেয়। যুদ্ধ পরবর্তী সময়ে যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশের খুবই করুণ অবস্থা হয়েছিল।

এবং ওই সময়ে জাতির এই দুর্দশা দেখে এবং গভীরভাবে অনুপ্রাণিত হয়ে রেভারেন্ড পল মুন্সি বাংলাদেশের হতাশাগ্রস্ত মানুষের মধ্যে একটি নতুন আশা ও আকাঙ্ক্ষা পুনর্জীবিত করার জন্য সিএসএস এনজিও প্রতিষ্ঠা করেন।

ঠিক ওই সময়ে বাংলাদেশে মূলত একটি সাহায্য নির্ভর দেশ ছিল যা সিএসএস এনজিও প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এর হস্তক্ষেপে কর্মসংস্থান ও জীবিকার সুযোগ সৃষ্টির জন্য দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ এর যে গুরুত্ব রয়েছে ওই গুরুত্বের উপর দৃষ্টি নিবন্ধন করেছিলেন।

সিএসএস এনজিও মূলত কি ধরনের কাজ করে

সিএসএস এনজিও হলো পুরোপুরি একটি বেসরকারি সংস্থা। যারা এনজিও অ্যাফেয়ার্স ব্যুরো সাথে নিবন্ধিত। সিএসএস এনজিও অনেকগুলো সেক্টরের সাথে কাজ করে। যেমন 

  • দুর্যোগ প্রতিক্রিয়া 
  • প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্বাস্থ্যসেবা
  • আনুষ্ঠানিক ও অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা 
  • কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা 
  • মাইক্রো এন্টারপ্রাইজ উন্নয়ন 
  • নারীর ক্ষমতায়ন
  • লিঙ্গ সমতা
  • জল ও স্যানিটেশন 
  • শিশুর যত্ন
  • এতিমখানা
  • শিশুশ্রম ও পাচার
  • এইচআইভি-এইডস 

মূলত সিএসএস এনজিও সংঘটনটির সামগ্রিক উদ্দেশ্য হলো প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে দারিদ্র্যচক্র থেকে পুরোপুরিভাবে বের করে আনা। এবং সামাজিক বৈষম্য রয়েছে এই বৈষম্যমুক্ত সমাজের কল্পনা করা এবং পুরোপুরি বৈষম্যমুক্ত সমাজের গঠন করা। ঠিক যেখানে পুরো প্রক্রিয়াটি উন্নয়নের সাথে পুরুষ ও নারীর সমানভাবে অবদান রাখা গুরুত্ব বহন করে।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?