করোনার টিকা কার্ড সংরক্ষণ/ডাউনলোড কিভাবে করবেন

করোনার টিকা রেজিস্ট্রেশন করার পর আপনাকে পরবর্তী ধাপে টিকা কার্ড সংরক্ষণ করতে হবে। কারণ করোনা টিকা কার্ড যদি আপনি সংরক্ষণ না করেন তাহলে আপনি করোনার টিকা দিতে পারবেন না। করোনা টিকা সংরক্ষণ করার মাধ্যমে আপনি টিকার কোন ডোজ নিচ্ছেন তা লিখা হবে এবং পরবর্তীতে যাচাই করা হবে। 

আমরা অনেকেই করোনার টিকা রেজিস্ট্রেশন করার পর পরবর্তী ধাপে কি করতে হবে তা নিয়ে অনেক দ্বিধায় পড়ে যায়। এজন্য অনেক সময় অন্যের সাহায্য নিতে হয় অথবা নিকটস্থ কম্পিউটার দোকানের সার্ভিস নেওয়া লাগে।

কিন্তু এ ধরনের কাজ গুলো খুবই সোজা আপনি নিজেই করতে পারবেন। শুধু শুধু অযথা বাহিরের টাকা খরচ করার কোন মানেই হয়না। শুধুমাত্র টিকা কার্ড সংরক্ষণ করে ৫ টাকা দিয়ে আপনি কিন্তু যে কোন দোকান থেকে প্রিন্ট করে টিকা কার্ডটি খুব সহজেই বের করে নিতে পারেন। কিন্তু আপনি যদি রেজিস্ট্রেশন সহ অন্যান্য যাবতীয় কাজ গুলো একসাথে করেন তাহলে আপনার কাছ থেকে ৫০ টাকা রেখে দিবে। 

করোনার টিকা কার্ড সংরক্ষণ অথবা ডাউনলোড করুন

  • লিংকে প্রবেশ করার পর আপনি যে মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করেছেন অর্থাৎ জাতীয় পরিচয় পত্র, জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট অথবা পাসপোর্ট যার মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করেন না কেন উক্ত বাটনে ক্লিক করুন।

আমি এখানে জাতীয় পরিচয় পত্রের মাধ্যমে টিকা কার্ড ডাউনলোড করা দেখাব।

  • জাতীয় পরিচয় পত্র ট্যাবে ক্লিক করার পর আপনি এখানে আপনার অথবা যে ব্যক্তি টিকা কার্ড ডাউনলোড করতে চাচ্ছেন উনার জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর এবং জন্মতারিখ সঠিকভাবে দিয়ে দিন। 
  • এরপর নিচের অংশে যে ক্যাপচাটি আছে ওই ক্যাপচাটি সঠিক ভাবে দেখে দেখে পূরণ করে ফেলুন।
  • যাচাই করুন বাটনে ক্লিক করার পর আপনি যে নাম্বারে রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন ওই নাম্বারে একটা ওটিপি কোড আসবে। ওটিপি কোড সঠিকভাবে দিয়ে টিকা কার্ড ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করুন। 
  • এরপর দেখবেন আপনি আপনার টিকার কার্ড টি ডাউনলোড করে ফেলেছেন এখন আপনি ডাউনলোড ফোল্ডার এ চেক করুন।

আশা করি আপনি খুব সহজেই টিকা কার্ড ডাউনলোড করতে পেরেছেন। এবার আপনার কাছে যদি কোন প্রিন্টার থাকে অথবা কোন প্রিন্টার এর সুবিধা থেকে থাকে তাহলে এখান থেকে প্রিন্ট করে নিতে পারবেন অথবা কোন দোকান থেকে এই ফাইলটি দিলেই তারা আপনাকে প্রিন্ট করে বের করে দিবে।

এবার আপনি ফাইলটির মাধ্যমে নিকটস্থ টিকাকেন্দ্রে গিয়ে টিকা দিতে পারবেন। 

তবে টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রথম শর্ত হচ্ছে আপনাকে রেজিস্ট্রেশন করার পর জানানো হবে এসএমএসের মাধ্যমে যে আপনি প্রথম, দ্বিতীয় এবং বুস্টার ডোজ কবে কোন তারিখে দিতে পারবেন।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?