২১ দফা থেকে ৫ দফা pdf

২১ দফা থেকে ৫ দফা pdf download

  • বইয়ের নাম – ২১ দফা থেকে ৫ দফা
  • লেখকের নাম – আব্দুর রহিম আজাদ
  • বইয়ের পৃষ্ঠা সংখ্যা – ৩৮২
  • বইয়ের সাইজ – ৬.৩৯

২১ দফা থেকে ৫ দফা pdf download

বইটি সংরক্ষণ করা হয়েছে ইন্টারনেট থেকে।

বইটির লেখক এর কোন ধরনের ক্ষতি আমাদের কাম্য নয়। আপনার যদি এই বইটির হার্ডকপি কেনার সামর্থ্য থাকে তাহলে অবশ্যই বইটির হার্ডকপি কিনে পড়ার চেষ্টা করবেন। কারণ হার্ডকপি পড়ার মজাই আলাদা। চোখে দেখে, হাতে ধরে, বারান্দায় বসে বই পড়ার আসল মজা উপভোগ করবেন বলে আশা করি।

আপনি যেহেতু বই খুজতে এসেছেন এটা দেখে খুবই ভালো লাগলো যে বাংলাদেশের মানুষ দিন দিন বই পড়ার প্রতি উৎসাহিত হচ্ছে। আসলে আমাদের দৈনন্দিন কাজের পাশাপাশি প্রতিদিনই বই পড়া উচিত।

বই একটি মানুষের চিন্তার জগৎকে প্রসারিত করে। এবং অবশ্যই বই হচ্ছে আপনার প্রকৃত বন্ধু যে কখনো আপনার ক্ষতি করে না। বিভিন্ন সময়ে বই আপনাকে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে সাহায্য করবে। ইন্টারনেট আমাদেরকে এতটাই গ্রাস করে রেখেছে যে আমরা শুধুমাত্র ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, ইউটিউব এবং জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়াগুলোতে সারাদিন পড়ে থাকি। এতে যে আমাদের কি পরিমান মূল্যবান সময় গুলো নষ্ট হয়ে যাচ্ছে তা আমরা হয়তো টের পাচ্ছি না।

তাই আমি সত্যিই আনন্দিত যে আপনি বইয়ের খোঁজ করতে এসেছেন এবং যদি পেয়ে যান তাহলে অবশ্যই যেন বইটি পুরোপুরি পড়ে ফেলেন।

কয়েকটি কারণ এখন আমি আপনাদের মাঝে উপস্থাপন করব যা আপনাকে বই পড়ার প্রতি খুবই উৎসাহিত করবে।

  • নতুন জ্ঞান অর্জন করার জন্য বই পড়ুন।
  • আত্মবিশ্বাস এবং আত্মউন্নয়ন ঘটানোর জন্য বই পড়ুন।
  • আপনার জ্ঞানের পাল্লা ভারী করার জন্য বই পড়ুন।
  • নতুন কোন কাজের সঠিক প্রস্তুতি নেয়ার জন্য বই পড়ুন।
  • বই পড়ে নিজেকে বোঝার ক্ষমতা অর্জন করুন।
  • আপনার কল্পনা শক্তি বৃদ্ধি করার জন্য বই পড়ার বিকল্প নাই।

বই পড়তে থাকুন একটি সময় আপনি নিজেই উপলব্ধি করতে পারবেন যে আপনি কি পরিমান অর্জন করেছেন এবং কি পরিমান হারিয়েছেন।

বিডি পপুলার যদি আপনার কোন পিডিএফ থেকে থাকে, এবং আপনার কোন ধরনের অভিযোগ থাকলে আমাদেরকে জানান। আমাদেরকে জানানোর 24 ঘন্টার মধ্যে আপনার অভিযোগটি আমলে নিয়ে আপনার বইটি এখান থেকে রিমুভ করে দেওয়া হবে।

যেহেতু ইন্টারনেট থেকেই বই গুলো সংরক্ষন করা হয়ে থাকে তাই কারো না কারো কাছে বইগুলো থেকে যায় এবং জালের মতো ছড়িয়ে যায় পরবর্তীতে। তাই একবার ইন্টারনেটে চলে আসার পর এই লিংকগুলো রিমুভ করা খুবই কষ্টকর হয়ে যায়।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?