মোবাইল গেম এর ভবিষ্যৎ কি হতে পারে

আমাদের সবার হাতে হাতে এখন স্মার্টফোন। স্মার্টফোনের জনপ্রিয়তায় আমরা এখন এই ধরনের মোবাইল গুলো ছাড়া কল্পনায় করতে পারেনা একটি পুরো দিন। তবে কল্পনা করতে পারিনা এই কারণেই যে আমরা এর দ্বারা অনেকগুলো কাজ করে থাকি যেগুলো করতে হয়তো অনেক সময় লাগতো স্মার্টফোন ছাড়া। 

কম্পিউটারে আমরা সকলেই গেম খেলে থাকে। এমন হয়তো খুব কমই পাওয়া যাবে যারা কম্পিউটারে গেম খেলে না। কম্পিউটারের পাশাপাশি স্মার্টফোনেও কিন্তু এখন সকলেই গেম খেলার চাহিদা পূরণ করতেছে। কম্পিউটারে যেসব কোম্পানি গেম তৈরি করে তারা মোবাইল ভার্সন এর গেম গুলো খুব সুন্দর করে তৈরি করে। আর তাছাড়া এই ধরনের গেম গুলো খুব সহজেই মোবাইল থেকে ডাউনলোড করা যায়। 

কম্পিউটারের গেম আপনি অনেকক্ষণ ধরে খুঁজে খুঁজে ডাউনলোড করতে হবে কিন্তু মোবাইল থেকে যখন আপনি ডাউনলোড করবেন তখন কিন্তু প্লেস্টোরে আপনি অনায়াসে অনেক গেমের অপসন একসাথে পেয়ে যাবেন। 

যেহেতু গেম খেলার জন্য স্মার্টফোন ভালো ধরনের একটি ভূমিকা পালন করতেছে তাই এই দিক থেকে মোবাইল প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলো চেষ্টা করতেছে উচ্চ ক্ষমতাশালী স্মার্টফোন তৈরি করতে। আবার গেম কোম্পানিগুলো তৈরি করতেছে হাই রেজুলেশনের ভালো ভালো গেম। 

কিছু কিছু কারণ আমরা এখানে দেখাবো যেগুলো প্রমাণ করবে যে কেন মোবাইল গেমিং এর ভবিষ্যৎ ভালো।

প্রথমত বলেন এই মোবাইল গেমিং এর ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করলে প্রথমেই মাথায় আসবে স্মার্ট ফোন। কারণ একমাত্র স্মার্টফোনের বিভিন্ন ধরনের গেম খেলার অপশন গুলো খুব সহজে পাওয়া যায়। 

স্মার্টফোন হলো একটি পোর্টেবল ডিভাইস। আপনি এই ধরনের ফোনগুলো যেখানে খুশি সেখানে নিয়ে যেতে পারবেন। এবং বলা যায় অনায়াসে প্রায় এক দিন চার্জ ধরে রাখতে সক্ষম আজকের দিনের স্মার্টফোনগুলো। 

অন্যদিকে যারা কম্পিউটারে গেম খেলেন তারা কিন্তু শুধুমাত্র বাসায় বসে কম্পিউটারের সামনে থাকেন। তারা কম্পিউটারগুলো কোথাও নিয়ে যেতে পারেন না। 

তাই বলা যায় কম্পিউটারের থেকে স্মার্টফোনে মোবাইল গেমিং এ খুবই ভালো করবে। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম মোবাইল গেমিং এর অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবে। যদিও গেম কোম্পানিগুলো এখনো ভালো করে বড় বাজার ধরতে পারেনি তবে অদূর ভবিষ্যতে গেমিং এর ভবিষ্যৎ ভালো বলে মনে করে অনেকে।

আমরা দেখে থাকবেন ফেসবুক অথবা ইউটিউব লাইফে অনেকে লাইভ গেম খেলে। তারা অনেক জনে মিলে একসাথে গেম গুলো খেলে অথবা নিজেই কোন গেমিং এ পারফর্ম করে। আবার একই সাথে দেখবেন এসকল গেমগুলো লাইভ করার মাধ্যমে তারা ইনকাম করে থাকে। 

আমি ভারতের কয়েকজন গেমার এর কথা জানি যারা লাইভ স্ট্রিমিং করে গেম খেলে। এবং তারা পুরো একটি টিম পুরো একটি বাংলো ভাড়া করে নিয়ে নিজস্বভাবে সেটআপ করে গেম লাইভ স্ট্রিমিং করতেছে। 

এ ধরনের প্রমাণ থেকেও বোঝা যায় যে গেমিং এর ভবিষ্যৎ ভালো। মোবাইল গেমিং এর ভবিষ্যৎ এ কারণেই ভালো যে মোবাইল কোম্পানিগুলো গেম খেলার জন্য আরও ভালো এবং শক্তিশালী মোবাইল ফোন গুলো তৈরি করতেছে। 

কিছু কিছু ক্ষেত্রে অনেক সীমাবদ্ধতা রয়েছে মোবাইল গেমিং এর। তবে এ সকল সীমাবদ্ধতা খুব তাড়াতাড়ি কাটিয়ে উঠবে বলে মনে হয়।

বিডিপপুলারে আপনাকে স্বাগতম!

আপনার লেখা বিডিপপুলারে পাবলিশ করবেন কিভাবে?

Leave a Comment